সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে এই ৬ ভুল এড়িয়ে চলুন

সম্পর্কে ভুল বোঝাবুঝি অবিশ্বাস এবং মানসিক দূরত্বের দিকে নিয়ে যেতে পারে। অনেক প্রাক্তন দম্পতি হয়তো খেয়াল করলে দেখতে পান, অতীতে তারা ছোট ছোট বিষয়গুলোকেই অনেক বেশি প্রাধান্য দিয়ে সম্পর্কটি শেষ করে এসেছেন। যে ভুলের সহজ সমাধান হতো, সেগুলোকেই বড় করে দেখা হয়েছে। যেখানে ক্ষমা করা সহজ ছিল, সেখানে ঘৃণার বীজ বপন করা হয়েছে। হয়তো দু’জনের মনেই চলছে ভিন্ন কিছু। কিন্তু কেবল বোঝার ভুলের কারণে অনেক সম্পর্কই আর টিকিয়ে রাখা যায় না।

আপনার সঙ্গীর মন পড়ার ক্ষমতা নেইঅনেকেই এমনটা ধরে নেয় যে, সে না বললেও সঙ্গী সব কথা বুঝে নেবে। কিন্তু বাস্তবতা হলো, আপনার সঙ্গীর মন পড়ার ক্ষমতা নেই। এটি আসলে কারোই থাকে না। আপনি যদি প্রত্যাশা করে থাকেন যে সে আপনার সব না বলা কথা বুঝে নেবে, তাহলে আপনাকে হতাশ হতেই হবে। তাই এসবের বদলে তার সঙ্গে খোলাখুলি কথা বলুন। আপনার আবেগ, ইচ্ছা, উদ্বেগ, অনুভূতির কথা তাকে জানান।

সমস্যা চেপে রাখবেন না

দ্বন্দ্ব এড়ানোর জন্য সবকিছু ঠিক আছে এমন ভান করা বন্ধ করুন। কারণ এটি আপনাকে সাময়িকভাবে সুখী মানুষ হিসেবে দেখাতে পারে কিন্তু ভেতরের সমস্যাগুলো দীর্ঘস্থায়ী করে দিতে পারে। তাই গঠনমূলক আলোচনা করুন, সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করুন। দু’জনে একসঙ্গে সমাধান খুঁজুন।

তার কথার ভুল ব্যাখ্যা করবেন না

ভুল বোঝাবুঝির সৃষ্টিই হয় দু’জন দু’জনকে বুঝতে না পারা থেকে। আপনার সঙ্গীর কাজের উদ্দেশ্য সম্পর্কে নেতিবাচক ধারণা করা বন্ধ করুন। অনুমান করেই সিদ্ধান্ত নিয়ে নেবেন না। আগে তার সঙ্গে খোলাখুলি কথা বলে সবটুকু জেনে নিন। কোনটি তার মনের কথা সে সম্পর্কে আগে নিশ্চিত হোন। অপ্রয়োজনীয় দ্বন্দ্ব প্রতিরোধ করে সম্পর্কের প্রতি বিশ্বাসকে শক্তিশালী করে তুলুন।

ব্যক্তিগত চাহিদা অবহেলা করবেন না

কখনও কখনও আমরা সম্পর্কের মধ্যে এতটাই ডুবে যাই যে আমাদের নিজস্ব চাহিদা এবং ইচ্ছাকে অবহেলা করে ফেলি। ব্যক্তিগত চাহিদা এবং সম্পর্কের মধ্যে সুস্থ ভারসাম্য বজায় রাখা অপরিহার্য। নিজের প্রতি যত্নশীল হোন, ব্যক্তিগত স্বার্থও দেখুন। নিজেকে ভালো থাকলেই বাকিদের ভালো রাখা সহজ হবে।

পুরনো ক্ষোভ ধরে রাখবেন না

অতীতের সমস্যাগুলো ধরে রাখলে সম্পর্কের মধ্যে একটি বিষাক্ত পরিবেশ তৈরি হতে পারে। যদিও ঝগড়া হওয়া স্বাভাবিক, সেইসঙ্গে ক্ষমা করা এবং ছাড় দিতে জানাও গুরুত্বপূর্ণ। প্রয়োজনে অতীতের সমস্যাগুলোর সমাধান করুন। বর্তমান মতবিরোধের সময় আপনার সঙ্গীকে আঘাত করার জন্য পুরানো কথা তুলে খোঁচা দেবেন না।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Raytahost Facebook Sharing Powered By : Raytahost.com