সূর্যের তাণ্ডবে সিরিজে টিকে রইল ভারত

টেস্ট ও ওয়ানডে ফরম্যাটে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে তাদের মাঠে হারানো ভারত টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরু হতেই খেই হারায়। মাঝারি মানের প্রথম দুই ম্যাচে জয় তুলে নিয়ে ক্যারিবীয় পাঁচ ম্যাচ সিরিজে এগিয়ে যায় ২-০ ব্যবধানে। ফলে আরেকটি ম্যাচ জিতলেই সিরিজ হাতছাড়া হয়ে যেত ভারতের। তবে এই যাত্রায় দলটিকে উদ্ধার করেছেন সূর্যকুমার যাদব। তার ঝড়ো ইনিংসের পাশাপাশি তিলক ভার্মার দায়িত্বশীল ব্যাটিং ভারতকে ৭ উইকেটের বড় ব্যবধানে জয় এনে দিয়েছে। এতে তাদের সিরিজ জয়ের আশাও বেঁচে রইল।

মঙ্গলবার (৮ আগস্ট) গায়ানায় তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে টস জিতে আগে ব্যাটিং করে স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজ। নির্ধারিত ওভার শেষে রোভম্যান পাওয়েলের দল ৫ উইকেটে ১৫৯ রান সংগ্রহ করে। দুটি চল্লিশোর্ধ ইনিংস খেলেন ব্রেন্ডন কিং ও অধিনায়ক পাওয়েল।এদিন শুরুটা অবশ্য বেশ ধীরগতির ছিল ক্যারিবীয়দের। পাওয়ার প্লে-তে কোনো উইকেট না হারালেও তারা মাত্র ৩৮ রান তোলে। এরপর হাত খুলে মারার চেষ্টায় স্পিনার অক্ষর প্যাটেলের বলে আউট হয়ে যান কাইল মায়ার্স। ২০ বলে তিনি ২৫ করেন। এরপর একটি করে ছক্কা ও চার মেরে বিদায় নেন জনসন চার্লসও। আগের ম্যাচে ঝড়ো ফিফটি করা নিকোলাস পুরান এবারও তেমন কিছুর ইঙ্গিত দেন, তবে এই বাঁ-হাতি ব্যাটার বেশিদূর যেতে পারেননি। ১২ বলে তিনি থামেন ২০ রানে।

তবুও বড় সংগ্রহের পথে এগিয়ে যেতে পারতে উইন্ডিজরা। কিন্তু একই ওভারে পুরান ও ব্র্যান্ডন কিংকে (৪২ বলে ৪২) ফিরিয়ে ভারতের হাতে নিয়ন্ত্রণ এনে দেন কুলদীপ যাদব। এতে রানের গতিও কমে যায় ক্যারিবিয়ানদের। পরে অবশ্য পাওয়েলের ঝড়ে দেড়শ ছাড়ায় স্বাগতিকরা। ১৯ বলের ইনিংসে তিনি ১ চার ও তিনটি ছক্কায় ৪০ রান করেন।

ভারতের হয়ে সর্বোচ্চ তিনটি উইকেট নেন কুলদীপ। এছাড়া প্যাটেল ও মুকেশ কুমার একটি করে শিকার করেছেন।

১৬০ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ভারতের শুরুটা ভালো হয়নি। প্রথম ওভারেই তারা হারায় আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে এই ম্যাচ দিয়ে অভিষেক হওয়া যশস্বি জয়সওয়ালকে। ২ বলেই শেষ হয় এই তরুণের ইনিংস। এরপর আরেক ওপেনার শুভমান গিলও বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি। ৩৪ রানে ২ উইকেট হারানোর পর তৃতীয় উইকেটে সূর্যকুমার ও তিলক উপহার দেন ৫১ বলে ৮৭ রানের বিধ্বংসী জুটি। তাতে ভারতের মুঠোয় চলে যায় ম্যাচটি।চোখজুড়ানো সব শটে ফরম্যাটটিতে ভারতকে জয়ের পথ দেখান সূর্য। অন্যপ্রান্তে তাকে দারুণ সঙ্গ দিয়েছেন প্রথমবার ভারতের হয়ে সিরিজটিতে খেলতে নামা তিলক। সূর্য ২৩ বলে ফিফটি করে শতকের পথে ছুটছিলেন। কিন্তু আলজারি জোসেফের নিচু ফুল টস বলে ডিপ স্কয়ার লেগে ক্যাচ দিয়ে থামেন ৩২ বছর বয়সী ব্যাটার। ৪৪ বলে ১০টি চার ও ৪টি ছক্কায় তার ব্যাটে আসে ৮৩ রান।

ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ রাখা ভারতের হয়ে বাকি কাজটা সারেন তিলক ও অধিনায়ক হার্দিক পান্ডিয়া। ছক্কায় ম্যাচের ইতি টেনে ১৫ বলে ২০ রানে অপরাজিত থাকেন পান্ডিয়া। সিরিজজুড়ে ধারবাহিক তিলক ৪টি চার এবং একটি ছক্কায় অপরাজিত ছিলেন ৪৯ রানে (৩৭ বল)। এর আগের দুটি হারের ম্যাচেও তিনি ছিলেন সবচেয়ে উজ্জ্বল। সেসব ম্যাচে তিনি যথাক্রমে করেছিলেন ২২ বলে ৩৯ ও ৪১ বলে ৫১ রান।

১৩ বল হাতে রেখেই ভারত ৭ উইকেটের দাপুটে জয় পেয়েছে। ফলে ক্যারিবীয়দের সঙ্গে তাদের সিরিজের ব্যবধান কমে এসেছে ২-১ এ। আগামী শনিবার ফ্লোরিডায় চতুর্থ ম্যাচে মুখোমুখি হবে দুদল।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Raytahost Facebook Sharing Powered By : Raytahost.com