কলেজ ভর্তিতে ৭ দিনে ১১ লাখ আবেদন

একাদশ শ্রেণির ভর্তিতে প্রথম সাত দিনে ব্যাপক সাড়া মিলেছে। গত বৃহস্পতিবার (১০ আগস্ট) রাত থেকে শুরুর পর আজ বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টা পর্যন্ত এক সপ্তাহে অনলাইনে ভর্তির আবেদন করেছে ১১ লাখ ৫৩ হাজারের বেশি শিক্ষার্থী‌। অর্থাৎ প্রতিদিন ১ লাখ ৬৪ হাজার ৭৯৩ জন শিক্ষার্থী আবেদন করছেন।

প্রথম থেকে ভর্তিতে ব্যাপক সাড়া পাওয়ার কারণ হিসেবে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর তপন কুমার সরকার ঢাকা পোস্টকে জানান, গত বৃহস্পতিবার থেকে অনলাইনে আবেদন শুরু হয়। এর মধ্যে ১৫ আগস্ট অনলাইনে আবেদন নেওয়া বন্ধ ছিল। বাকি ৭ দিনে ১১ লাখ ৫৩ হাজারের বেশি আবেদন পড়েছে।

অভিভাবক, ভর্তিচ্ছুক শিক্ষার্থীরা প্রথমদিকে আবেদন করার কারণে এমন বেশি আবেদন পড়েছে বলে জানিয়েছেন বোর্ড চেয়ারম্যান।

তিনি বলেন, ভর্তির আবেদনের এ সংখ্যা ৯টি সাধারণ শিক্ষাবোর্ড ও মাদ্রাসা বোর্ডের। কারিগরি বোর্ড আলাদাভাবে আবেদন নিয়ে থাকেন। প্রতিবছর প্রথম এক সপ্তাহ ৮০ শতাংশের বেশি ভর্তি আবেদন পড়ে থাকে। এবারও এর ব্যতিক্রম হয়নি।

ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের তথ্যমতে, বৃহস্পতিবার রাত ১২টা থেকে একাদশে ভর্তির আবেদন শুরু হয়। আজ বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টা পর্যন্ত ১১ লাখ ৫৩ হাজার ৫৫৩ জন আবেদন করেছেন। প্রতিজন শিক্ষার্থী ৫টি থেকে ১০টি কলেজে আসন পছন্দ দিতে পারছেন।

এবারও তিন দফা আবেদন কার্যক্রম চলবে। ক্লাস শুরু হবে আগামী ৮ অক্টোবর। নীতিমালায় গত বছরের মতো এবারও আবেদন ফি ১৫০ টাকা করা হয়েছে। পাশাপাশি রেজিস্ট্রেশন ফি করা হয়েছে ৩৩৫ টাকা। আগামী ২০ আগস্ট পর্যন্ত প্রথম ধাপের আবেদন চলবে।

আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, এবার একাদশে ভর্তিতে মোট আসন রয়েছে ২৬ লাখের বেশি। আর এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন ১৬ লাখ ৪১ হাজার ১৪০ জন। সে হিসেবে একাদশে ভর্তিতে আসন সংকট হবে না। তবে কাঙ্ক্ষিত কলেজে চান্স পাওয়া নিয়ে ভাবতে হবে শিক্ষার্থীদের।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের জন্য ৭ শতাংশ বাদে কলেজের ৯৩ শতাংশ আসন সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে ও এসব আসনে ভর্তির জন্য মেধার ভিত্তিতে শিক্ষার্থী নির্বাচন করা হবে।

যেভাবে আবেদন করা যাচ্ছে

http://xiclassadmission.gov.bd সার্ভারে আবেদন করার আগে শিক্ষার্থীদের আবেদন ফি জমা দিতে হয়। সেই ফি কোনও ব্যাংকে না গিয়েও বিকাশের মাধ্যমে পরিশোধ করা যাবে। তারপর পছন্দের কলেজ বাছাই করে অনলাইনে সাবমিট করতে হবে।

আবেদন করার সময়সূচি

প্রথম ধাপের আবেদন নেওয়া হবে ২০ আগস্ট পর্যন্ত। ৩১ আগস্ট পুনর্নিরীক্ষণের আবেদন করে ফল বদলানো শিক্ষার্থীদের আবেদনের সুযোগ দেওয়া হবে। ৫ সেপ্টেম্বর প্রথম ধাপের ফল প্রকাশ করা হতে পারে। ৭ থেকে ১০ সেপ্টেম্বর নির্বাচন নিশ্চয়নের সুযোগ পাবে প্রথম ধাপে নির্বাচিত শিক্ষার্থীরা।

এরপর ১২ থেকে ১৪ সেপ্টেম্বর দ্বিতীয় ধাপের আবেদন নিয়ে ফল প্রকাশ করা হতে পারে ১৬ সেপ্টেম্বর। প্রথম মাইগ্রেশন ফল প্রকাশ করা হবে ১৬ সেপ্টেম্বর। ১৭ ও ১৮ সেপ্টেম্বর দ্বিতীয় ধাপে নির্বাচিতরা নির্বাচন নিশ্চয়নের সুযোগ পাবে।

আর ২০ ও ২১ সেপ্টেম্বর তৃতীয় পর্যায়ের আবেদন নিয়ে ২৩ সেপ্টেম্বর ফল প্রকাশ করা হবে। ২৪ ও ২৫ সেপ্টেম্বর তৃতীয় ধাপের নির্বাচন নিশ্চয়ন চলবে। আর ২৬ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হয়ে ৫ অক্টোবর পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের ভর্তি চলবে। ক্লাস শুরু হবে ৮ অক্টোবর।

নির্বাচিত শিক্ষার্থীকে ৩৩৫ টাকা দিয়ে প্রাথমিকভাবে ভর্তি নিশ্চিত করতে হবে। আগে প্রাথমিক নিশ্চয়ন ফি ছিল মোট ৩২৮ টাকা।

অপরদিকে উচ্চ আদালতের আদেশে চার্চ পরিচালিত কলেজ নটরডেম, হলিক্রস ও সেন্ট জোসেফ নিজস্ব পদ্ধতিতে শিক্ষার্থী ভর্তি করবে।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Raytahost Facebook Sharing Powered By : Raytahost.com