স্ত্রীর পরকীয়া প্রেমিকের হাতে প্রবাসী স্বামী খুন, আটক ২

স্ত্রীর পরকীয়া প্রেমিকের সঙ্গে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে ধারালো কাঁচির আঘাতে খুন হয়েছেন দুবাই প্রবাসী স্বামী আলাউদ্দিন বেপারী (৩৪)। এ ঘটনায় দুজনকে আটক করেছে পুলিশ।

শনিবার (১৯ আগস্ট) রাত সাড়ে ৮টার দিকে শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলার সখিপুর থানার উত্তর তারাবুনিয়া ইউনিয়নের মজিল হক বেপারী কান্দি গ্রামের তিন রাস্তার মোড়ে এ ঘটনা ঘটেছে।

নিহত প্রবাসী আলাউদ্দিন বেপারী ওই গ্রামের মুকবুল হক বেপারীর ছেলে। আটককৃতরা একই গ্রামের ওবায়দুল্লাহ মৃধার দুই ছেলে আব্দুল্লাহ মৃধা (২৫) ও রিফাত মৃধা (২০)।

এছাড়া মারামারি ছাড়াতে গিয়ে আহত হয়েছেন একই গ্রামের সাদেক প্রধানীয়ার ছেলে কিরন প্রধানীয়া (২২)। তিনি বর্তমানে চাঁদপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। নিহত আলাউদ্দিন বেপারীর মরদেহও একই হাসপাতালের মর্গে রয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আলাউদ্দিন বেপারী দীর্ঘদিন ধরে দুবাই প্রবাসী ছিলেন। তার স্ত্রী রুমা আক্তার (২৮) দুই ছেলে-মেয়ে নিয়ে বাড়িতে থাকতেন। অভিযুক্ত আব্দুল্লাহ মৃধা আলাউদ্দিন বেপারীর একটি দোকান ভাড়া নিয়ে টেইলার্সের ব্যবসা করতেন। ভাড়া তোলাসহ কাপড় সেলাই করতে গিয়ে রুমার সঙ্গে আব্দুল্লাহর সম্পর্কের উন্নতি হয়। এক মাস আগে আলাউদ্দিন দেশে ফেরার পর আব্দুল্লাহ ও রুমার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে বলে জানতে পারেন। তবে স্থানীয় মুরব্বিরা বিষয়টি নিয়ে উভয়পক্ষকে বাড়াবাড়ি করতে নিষেধ করেন। তারপর আলাউদ্দিন আব্দুল্লাহ মৃধার সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে তর্কে জড়িয়ে পড়লে আব্দুল্লাহ তার হাতে থাকা কাপড় কাটার কাঁচি দিয়ে আলাউদ্দিনের ঘাড়ে আঘাত করেন। স্থানীয়রা ছাড়াতে গেলে তারাও আহত হোন। এরপর আলাউদ্দিনকে হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

স্ত্রী রুমা আক্তার ঢাকা পোস্টকে বলেন, দীর্ঘদিন ধরে আব্দুল্লাহ আমার একটি গোপন ছবি দিয়ে আমাকে জ্বালাতন করত। ভয় দেখিয়ে বলত, ফেসবুকে ছবি ভাইরাল করে দেব। সেই ছবি আজ আমার মোবাইলে দিয়েছে সে। ছবিটি আমি ডিলেট করিনি, আমার স্বামীকে দেখানোর জন্য। সে ছবি দেখতে পেয়ে আব্দুল্লাহর দোকানে গিয়েছিল। তারপর এই ঘটনা ঘটেছে।

মো. তাহের আলী নামে স্থানীয় একজন ঢাকা পোস্টকে বলেন, পরকীয়া প্রেমের কারণে এই জঘন্য ঘটনা ঘটেছে। আব্দুল্লাহ মৃধা আলাউদ্দিন বেপারীর ঘাড়ে কাঁচি ঢুকিয়ে দিয়ে তাকে হত্যা করেছে। এরকম ঘটনা যেন আর না ঘটে সেজন্য সঠিক তদন্তের মাধ্যমে দোষীদের বিচার দাবি করছি।

আলাউদ্দিন বেপারীর ছোট বোন তানজিলা আক্তার ঢাকা পোস্টকে বলেন, আব্দুল্লাহ ও রুমা প্রেম করে। বিষয়টি নিয়ে জানাজানি হওয়ার পর বিচার সালিশ হয়েছে। বিচারে আব্দুল্লাহকে সর্তক করে দেওয়া হয়েছিল। আলাউদ্দিনকে হত্যাকারী আব্দুল্লাহ মৃধা, তার ভাই রিফাত মৃধা ও রুমা আক্তারের উপযুক্ত বিচার দাবি করছি আমি।বিষয়টি নিয়ে শরীয়তপুরের সহাকারী পুলিশ সুপার (ভেদরগঞ্চ সার্কেল) মুসফিকুর রহমান ঢাকা পোস্টকে বলেন, আলাউদ্দিনকে কাঁচির আঘাতে খুন করা হয়েছে। এই ঘটনায় আব্দুল্লাহ মৃধা ও রিফাত মৃধা নামে দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ। আলাউদ্দিনের স্ত্রী রুমা আক্তারের সঙ্গে আব্দুল্লাহর প্রেমের সম্পর্ক ছিল বলে জানতে পেরেছি। তাদের পরকীয়া প্রেমের বিষয়টি নিয়ে এলাকার মুরব্বিরা তাদেরকে বাড়াবাড়ি করতে নিষেধ করেছিল। মুরব্বিদের সিদ্ধান্ত ছিল, যে যার মত থাকবে। তারপরও পরকীয়া প্রেম নিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে পরকীয়া প্রেমিকের হাতে খুন হয়েছেন প্রবাসী আলাউদ্দিন বেপারী। এঘটনায় মামলা হওয়ার পর আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

আজকের দিন-তারিখ
  • মঙ্গলবার (সন্ধ্যা ৬:০৮)
  • ১৬ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • ১০ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি
  • ১লা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ (বর্ষাকাল)
Raytahost Facebook Sharing Powered By : Raytahost.com