ভারত-ওয়েস্ট ইন্ডিজ ওয়ানডে সিরিজ শুরু রবিবার

২০০৬ সালের পর ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে কোন দ্বিপাক্ষিক ওয়ানডে সিরিজ হারেনি ভারত। এমন রেকর্ড নিয়ে ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে আবার ওয়ানডে সিরিজ খেলতে নামছে টিম ইন্ডিয়া। জয়ের ধারা অব্যাহত রাখার লক্ষ্য নিয়ে আগামীকাল (রবিবার) তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ শুরু করছে ভারত।

অপরদিকে, দীর্ঘদিন ভারতের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ জিততে না পারার বন্ধ্যাত্ব ঘোচানোর লক্ষ্য নিয়ে মাঠে নামবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। চেন্নাইয়ে বাংলাদেশ সময় দুপুর ২টায় শুরু হবে সিরিজের প্রথম ওয়ানডে।

১৯৮৩ সাল থেকে দ্বিপাক্ষিক ওয়ানডে সিরিজে অংশ নেয় ভারত-ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ২০০৬ সালে সর্বশেষ দেশের মাটিতে ভারতের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ জিতে ক্যারিবীয়রা। এরপর ভারতের বিপক্ষে নয়টি ওয়ানডে সিরিজে অংশ নিয়েও জিততে পারেনি ওয়েস্ট ইন্ডিজ। সর্বশেষ গেল আগস্টে নিজ মাঠে ভারতের কাছে ২-০ ব্যবধানে সিরিজ হারে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

চলতি বছর ওয়ানডেতে দুর্দান্ত ফর্মে আছে ভারত। এ বছর ২৫টি ওয়ানডেতে অংশ নিয়ে ১৭টিতে জয় পায় টিম ইন্ডিয়া। এরমধ্যে ইংল্যান্ডে ওয়ানডে বিশ্বকাপের ম্যাচও ছিলো। পুরো আসরে দুর্দান্ত পারফরমেন্সের পরও সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নেয় ভারত। বিশ্বকাপের পর ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষেই ওয়ানডে সিরিজ জিতেছে টিম ইন্ডিয়া।

ওয়ানডে সিরিজ শুরুর আগে দেশের মাটিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টি-২০ সিরিজে অংশ নেয় ভারত। ২-১ ব্যবধানে টি-২০ সিরিজ জিতে ভারত। এবার ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজও জিততে চায় বিরাট কোহলির দল।

ভারতের ওপেনার রোহিত শর্মা বলেছেন, ‘ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ২০০৬ সালের পর থেকে ওয়ানডে সিরিজ হারিনি আমরা। এই পরিসংখ্যানেই বুঝা যাচ্ছে, ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে আমাদের রেকর্ড খুবই ভালো। এই রেকর্ড ধরে রাখার লক্ষ্য আমাদের। ওয়ানডে সিরিজ জয়ই আমাদের প্রধান লক্ষ্য। টি-২০ সিরিজে দুর্দান্ত খেলেছে দল। এতে সতীর্থদের আত্মবিশ্বাস তুঙ্গে রয়েছে। ওয়ানডে ও টি-২০তে শক্ত প্রতিপক্ষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ। টি-২০ সিরিজ হারলেও, ওয়ানডেতে তারা ঘুড়ে দাঁড়ানোর সর্বাত্মক চেষ্টা করবে। তবে আমরা সতর্ক। আমাদের সেরাটা দিয়েই লড়াই করার চেষ্টা করব।’

ভারতের নিয়মিত ওপেনার শিখর ধাওয়ান ও পেসার ভুবেনশ্বর কুমার ইনজুরির কারনে ওয়ানডে সিরিজ থেকে ছিটকে পড়েছেন। তাই রোহিতের সাথে ইনিংস শুরু করবেন লোকেশ রাহুল। সদ্য শেষ হওয়া টি-২০ সিরিজে দৃর্দান্ত পারফরমেন্স করেছেন রাহুল। ৩ ইনিংসে ২টি হাফ- ৎসেঞ্চুরিতে ১৬৪ রান করেন তিনি। সিরিজ নির্ধারনী ম্যাচে ৯১ রানের ইনিংস খেলে ভারতের জয়ে প্রধান ভূমিকা রাখেন রাহুল। সাথে ছিলো অধিনায়ক কোহলির বিধ্বংসী ব্যাটিং। ২৯ বলে অপরাজিত ৭০ রান করেন কোহলি। ফলে ৬৭ রানে ম্যাচ জিতে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জিতে ভারত।

ভারতের মত এ বছর ২৫টি ওয়ানডে খেলেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজও। তবে জয় মাত্রটি ৯টি। এর মধ্যে গত মাসে ভারতের মাটিতে আফগানিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচে সিরিজ ৩-০ ব্যবধানে জিতে ক্যারিবীয়রা। আফগানিস্তানের বিপক্ষে সিরিজ জয়ের আগে ২০১৪ সালে সর্বশেষ ওয়ানডে ফরম্যাটে সিরিজ জিতেছিলো ক্যারিবীয়রা। তাই ওয়ানডেতে সিরিজ জয়ের ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে চায় ওয়েস্ট ইন্ডিজও। ভারতের বিপক্ষে সিরিজ জয়ের ব্যাপারে আশাবাদি ক্যারিবীয় অধিনায়ক কাইরন পোলার্ড, ‘ভারতের বিপক্ষে টি-২০ সিরিজে ভালো খেলেও, আমরা হেরেছি। তবে ঐ সিরিজ থেকে দল আত্মবিশ্বাসী হয়ে উঠেছে। ভারতের মত শক্তিশালী দলের বিপক্ষে জয় পেতে হলে মাঠে নিজেদের সেরাটাই দিতে হবে। দল প্রস্তুত নিজেদের সেরাটা দেয়ার জন্য।’

টি-২০ সিরিজে ইনজুরিতে পড়েন ওপেনার এভিন লুইস। তাই শাই হোপের পরিবর্তে ইনিংস উদ্বোধন করবেন সুনীল অ্যামব্রিস।

ওয়ানডেতে এখন পর্যন্ত ১৩০বার মুখোমুখি হয় ভারত ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এরমধ্যে সমান ৬২টি করে ম্যাচ জিতেছে দু’দল। ২টি টাই ও ৪টি ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

আজকের দিন-তারিখ
  • শুক্রবার (সকাল ১১:১৭)
  • ১৯শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • ১৩ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি
  • ৪ঠা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ (বর্ষাকাল)
Raytahost Facebook Sharing Powered By : Raytahost.com