বিয়ে দীর্ঘদিন টিকিয়ে রাখবেন যে কৌশলে

বর্তমানে বিয়ের আগে কমবেশি বেশিরভাগ নারী-পুরুষই বেশ কিছুদিন চুটিয়ে প্রেম করেন। একে অন্যকে ভালোভাবে বোঝার চেষ্টা করেন তারা।

তারপর যখন তারা মনে করেন, একে অন্যের সঙ্গে সারাজীবন কাটাতে পারবেন ঠিক তখনই ভেবেচিন্তেই বিয়ে করেন। তবে বিয়ের পর হয়তো বিভিন্ন কারণে দাম্পত্যে অশান্তির সৃষ্টি হতে পারে।

আরও পড়ুন: মানুষ কেন প্রতারণা করে?

এর থেকেই এক সময় দুজনের মধ্যে বিভেদ বাড়ে ও সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে যান কেউ কেউ। অর্থাৎ ডিভোর্সের মাধ্যমে একটি দাম্পত্যের অবসান ঘটে। এ ধরনের ধরনের ঘটনা এখন অহরহ ঘটছে। অনেকে তো ডিভোর্স আতঙ্কে বিয়ে করতেও ভয় পান।

বিশেষজ্ঞদের মতে, এখন যত তাড়াতাড়ি সম্পর্ক তৈরি হয়, তা ভেঙে যেতে সময় লাগে অনেক কম। তবে চাইলেই সব প্রতিবন্ধকতা এড়িয়ে সম্পর্ক দীর্ঘস্থায়ী করা যায়।

এজন্য অবশ্য দুজনেরই সমান অবদান রাখতে হবে দাম্পত্য জীবনে। জেনে নিন ডিভোর্স এড়াতে ও দাম্পত্য জীবন দীর্ঘস্থায়ী করতে কী করণীয়-

আরও পড়ুন: সঙ্গীর যে কাজ পুরুষদের মোটেও পছন্দ নয়

বোঝাপড়া ভালো রাখতে হবে

দাম্পত্য সম্পর্ক ভালো রাখার অন্যতম উপায় হলো দুজনের মধ্যকার বোঝাপড়া ভালো থাকা। আর বোঝাপোড়া ঠিক রাখতে চাইলে অবশ্যই একে অন্যকে সময় দিতে হবে, মনের কথা জানতে ও বুঝতে হবে।

খোলাখুলি কথা বলা

যে কোনো সমস্যায় নিজেদের মধ্যে কথা বলার বিকল্প নেই। স্বামী বা স্ত্রীর কোনো কাজে আপনি মনে কষ্ট পেতেই পারেন বা তার কোনো আচরণ আপনার ভালো নাও লাগতে পারে।

তবে এসব বিষয় মনে পুষে না রেখে খোলাখুলি কথা বলুন নিজেদের মধ্যে। তাহলে ভুল বোঝাবুঝির অবসান ঘটবে ও সম্পর্কে দুরত্বও সৃষ্টি হবে না।

আরও পড়ুন: স্বামী-স্ত্রীর যেসব অভ্যাস সংসারে অশান্তির কারণ হতে পারে

হাসিখুশি থাকুন ও ইতিবাচক চিন্তা করুন

যতটা সম্ভব হাসিখুশি থাকুন ও ইতিবাচক চিন্তা করুন। সবার জীবনেই কোনো না কোনো কষ্ট বা দুঃখ আছে। তবে হাসিমুখে সব কষ্ট জয় করার নামই জীবন। নিজের দুঃখ-কষ্ট বা মন খারাপের প্রভাব দাম্পত্যে ফেলবেন না।

বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যায় স্বামী অফিসের রাগ ঘরে ফিরে স্ত্রীর উপর দেখান আবার স্ত্রীও হয়তো সংসারের নানা চাপ স্বামীর সঙ্গে ভাগাভাগি করতে গেলে অশান্তি লেগে যায়। যতটুকু সময় পাবেন পরিবারের সঙ্গে হাসিখুশি থাকুন।

সর্বদা সত্য কথা বলুন

সঙ্গীর সঙ্গে সর্বদা সত্য কথা বলুন। স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কোনো বিষয়ই গোপন রাখা ঠিক নয়। এতে বিপদ আরও বাড়তে পারে। এমন কোনো কাজ আপনি করবেন না, যার জন্য সঙ্গীকে মিথ্যা কথা বলার দরকার পড়ে।

আরও পড়ুন: মানসিক চাপ যাদের জন্য হতে পারে বিপজ্জনক

অতিরিক্ত ঝগড়া করবেন না

কথায় কথায় ঝগড়ার অভ্যাস থাকলে তা ত্যাগ করুন। হয়তো আপনি বলবেন স্ত্রীর দোষ আবার স্ত্রী বলবেন স্বামীর দোষ, তবে নিজেদের মধ্যে দোষারোপ না করে বরং ঝগড়াকে ভালোবাসায় রূপ দিন।

কথা কাটাকাটি বা সামান্য ঝগড়া সব দম্পতিদের মধ্যেই হয়, তাই বলে ঝগড়ার সময় একে অন্যকে বলা কটূ কথা ধরে দিনের পর দিন আলাদা থাকবেন না।

এতে সম্পর্কে দুরত্ব বাড়ে। আর এই দুরত্বের মধ্যেই কখনো কখনো তৃতীয় জন প্রবেশ করে জীবনে! তাই সতর্ক থাকুন।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

আজকের দিন-তারিখ
  • শুক্রবার (সকাল ৬:৪৫)
  • ১৯শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • ১৩ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি
  • ৪ঠা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ (বর্ষাকাল)
Raytahost Facebook Sharing Powered By : Raytahost.com