হিমাচল প্রদেশে ব্যাপক বৃষ্টি ও ভূমিধসে নিহত ১৬

ভারতের উত্তরাঞ্চলীয় রাজ্য হিমাচল প্রদেশে ভারী বর্ষণ সংক্রান্ত দু’টি পৃথক ঘটনায় ১৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে রাজ্যটির সোলান জেলায় আকস্মিক ব্যাপক বৃষ্টিতে ৭ জন নিহত হয়েছেন।

এছাড়া শিমলা শহরের সামার হিল এলাকায় একটি শিব মন্দিরে ভূমিধসে নয়জন মারা গেছেন। এই ঘটনায় আরও অনেকে আটকা পড়ে থাকতে পারেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।সোমবার (১৪ আগস্ট) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, হিমাচল প্রদেশের সোলান জেলায় আকস্মিক ব্যাপক বৃষ্টিতে ৭ জন নিহত হয়েছেন বলে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে। এছাড়া সোলানের কান্দাঘাট মহকুমার মামলিগ গ্রামে বৃষ্টির পর ছয়জনকে উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে তারা।

এছাড়া আকস্মিক ওই বৃষ্টির জেরে দু’টি বাড়ি এবং একটি গোয়ালঘর ভেসে গেছে বলে জানিয়েছে ভারতীয় বার্তাসংস্থা এএনআই। সোলানের পুলিশ সুপার গৌরব সিং বলেছেন, নিহতরা হচ্ছেন- হরনাম (৩৮), কমল কিশোর (৩৫), হেমলতা (৩৪), রাহুল (১৪), নেহা (১২), গোলু (৮) এবং রক্ষা (১২)।

এই ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন হিমাচল প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী সুখবিন্দর সিং সুখু। এক টুইট বার্তায় তিনি বলেছেন, তিনি ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে সম্ভাব্য সকল ধরনের সহায়তা নিশ্চিত করতে কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছেন।

মুখ্যমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে দেওয়া টুইট বার্তায় বলা হয়েছে, ‘সোলান জেলার ধওলা সাব-তহসিলের জাদন গ্রামে মর্মান্তিক আকস্মিক বর্ষণের ঘটনায় ৭ জনের প্রাণহানির কথা শুনে আমি বিধ্বস্ত। শোকাহত পরিবারগুলোর প্রতি আমি আমার আন্তরিক সমবেদনা জানাচ্ছি। এই কঠিন সময়ে আমরা আপনার বেদনা ও দুঃখের অংশীদার।’

ভারী বৃষ্টিপাতের মধ্যে শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার কথা বিবেচনায় রেখে ভারতের পার্বত্য এই রাজ্যের সমস্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আজ সোমবার বন্ধ থাকবে বলে মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন। প্রবল বৃষ্টির পর ক্ষয়ক্ষতি এবং ধ্বংসের খোঁজখবর নিতে রাজ্যের সকল জেলা কালেক্টরের সঙ্গে কথা বলেছেন বলেও জানিয়েছেন তিনি।

এনডিটিভি বলছে, ভারী বৃষ্টির জেরে সড়ক যোগাযোগ বন্ধ এবং ভূমিধসের কারণে ক্ষয়ক্ষতির বিষয়েও মুখ্যমন্ত্রীকে অবহিত করা হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে মুখ্যসচিব, স্বরাষ্ট্র সচিবের পাশাপাশি রাজ্যের সকল ডিসিকে পরিস্থিতির দিকে কড়া নজর রাখার নির্দেশ দিয়েছেন সুখবিন্দর সিং সুখু।

এর আগে ভারী বৃষ্টির জেরে হিমাচল প্রদেশে কয়েক শতাধিক সড়কে ধসের ঘটনা ঘটে। এতে রাজ্যের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। রোববার ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানায়, গত কয়েক দিনের ভারী বৃষ্টিপাতে হিমাচলের একাধিক এলাকায় অন্তত ৩০২টি রাস্তা বন্ধ করে দিতে বাধ্য হয়েছে প্রশাসন।

অপরদিকে রাজ্যের দুর্যোগ মোকাবিলা দলের তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ জুন থেকে হিমাচল প্রদেশে পাহাড়ি ঢল ও বর্ষার কারণে ২৫৭ জন মানুষ নিহত হয়েছেন। নিহত এই ২৫৭ জনের মধ্যে ৬৬ জন ভূমিধস ও আকস্মিক বন্যায় প্রাণ হারিয়েছেন।

এছাড়া সড়ক দুর্ঘটনা বা অন্যান্য কারণে ১৯১ জন প্রাণ হারিয়েছেন। এমনকি ৩২ জন এখনও নিখোঁজ রয়েছেন এবং আরও ২৯০ জন আহত হয়েছেন বলেও জানিয়েছেন কর্মকর্তারা।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

আজকের দিন-তারিখ
  • বুধবার (দুপুর ২:৫৮)
  • ১৭ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • ৮ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি
  • ৪ঠা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ (গ্রীষ্মকাল)
Raytahost Facebook Sharing Powered By : Raytahost.com