হবিগঞ্জে বিএনপি-পুলিশ সংঘর্ষে আহত প্রায় আড়াইশ, আটক ৮

হবিগঞ্জে বিএনপি ও পুলিশের মধ্যে সংঘর্ষে উভয় পক্ষের প্রায় আড়াইশ জন আহত হয়েছেন। শনিবার (১৯ আগস্ট) বিকেলে বিএনপির পদযাত্রা কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে দুই ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষে দুই শতাধিক বিএনপি নেতাকর্মী ও ২০ জন পুলিশ আহত হন। এছাড়া ঘটনাস্থল থেকে আটজন বিএনপি নেতাকর্মীকে আটক করা হয়।

হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) বদিউজ্জামান বলেন, বিএনপি নেতাকর্মীরা পুলিশকে ইটপাটকেল ছুঁড়তে থাকলে পুলিশ নিজেদের রক্ষায় রাবার গুলি ও কাঁদানে গ্যাস ব্যবহার করে। বিএনপি নেতাকর্মীদের আক্রমণে আমিসহ পুলিশের বেশ কয়েকজন সদস্য আহত হয়েছি। গুরুতর আহত অবস্থায় হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ অজয় চন্দ্র দেব, নবাগত পরিদর্শক (তদন্ত) রফিকুল ইসলাম, এসআই খুর্শেদ আলী, মনিরুজ্জামান চৌধুরীসহ ২০ জন হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নেন। এর মধ্যে অফিসার ইনচার্জ অজয় চন্দ্র দেব চোখে মারাত্মক আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে হবিগঞ্জ ২৫০ শয্যা সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।হবিগঞ্জ জেলা বিএনপি সিনিয়র যুগ্ম-আহ্বায়ক আলহাজ্ব জি কে গউছের দাবি- হবিগঞ্জ পৌর বিএনপি সাধারণ সম্পাদক এস এম আওয়াল, পৌর যুবদলের আহ্বায়ক মোর্শেদ আলশ সাজন এবং কমপক্ষে দুই শতাধিক নেতাকর্মী গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয়েছেন। এছাড়া আশংকাজনক অবস্থায় চারজনকে সিলেটে প্রেরণ করা হয়েছে।বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ও হবিগঞ্জ জেলা বিএনপি সিনিয়র যুগ্ম-আহ্বায়ক আলহাজ্ব জি কে গউছ বলেন, তারা শান্তিপূর্ণ পদযাত্রা কর্মসূচি পালন করছিলেন। এসময় এডিশনাল এসপি (সদর সার্কেল) খলিলুর রহমান কর্মসূচি পরবর্তী কোনো আলোচনা সভা করতে দেওয়া হবে না জানিয়ে আমাদের ওপর চড়াও হন। একপর্যায়ে পুলিশ নেতাকর্মীদের ওপর গুলি ছুড়তে থাকে। এতে কমপক্ষে বিএনপির দুই শতাধিক নেতাকর্মী আহত হন।হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) বদিউজ্জামান রাত ১১টায় এ রিপোর্ট লেখাকালে আটজনকে আটক করা হয় বলে জানান। এছাড়া পুলিশ বিএনপি নেতাকর্মীদের ধরতে অভিযান অব্যাহত রাখছে এবং পুলিশ বাদি হয়ে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে।পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, দলীয় চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে শনিবার বিকেলে হবিগঞ্জ জেলা বিএনপি পদযাত্রা কর্মসূচির আয়োজন করে। এর আগে বিএনপি নেতাকর্মীরা শহরের শায়েস্তানগর এলাকায় অবস্থিত বিএনপির জেলা কার্যালয়ে জড়ো হতে থাকেন। বিকেল ৫টার দিকে সমাবেশস্থল থেকে বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ও হবিগঞ্জ জেলা বিএনপির যুগ্ম-আহ্বায়ক জি কে গউছের নেতৃত্বে পদযাত্রা শায়েস্তানগরস্থ দলীয় কার্যালয়ের সামনে এলে হবিগঞ্জ সদর থানার একদল পুলিশ তাতে বাধা দেয়। এ নিয়ে বিএনপি নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের বাকবিতণ্ডা শুরু হয়। একপর্যায়ে বিএনপি ও পুলিশের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। বিএনপি নেতাকর্মীরা শায়েস্তানগর এলাকার বিভিন্ন পয়েন্ট থেকে পুলিশকে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করেন। পুলিশও অজস্র গুলি ও কাঁদানে গ্যাস ব্যাবহার করে। এসময় শহরজুড়ে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। শহরের প্রধান সড়ক দিয়ে যানচলাচল বন্ধ থাকে। পরে সন্ধ্যার পর পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।হবিগঞ্জের সহকারী পুলিশ সুপার পলাশ রঞ্জন দে জানান, বিএনপির পদযাত্রায় পুলিশের ওপর হামলা চালানো হয়। এসময় পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে রাবার বুলেট ও টিয়ার শেল নিক্ষেপ করতে বাধ্য হয়। তবে ঠিক কত রাউন্ড রাবার বুলেট ও টিয়ার শেল নিক্ষেপ করা হয়েছে, তা পরে আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হবে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

আজকের দিন-তারিখ
  • বুধবার (রাত ২:১৪)
  • ১৭ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • ৮ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি
  • ৪ঠা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ (গ্রীষ্মকাল)
Raytahost Facebook Sharing Powered By : Raytahost.com