রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট প্রার্থীদের বিতর্কে অংশ নেবেন না ট্রাম্প

যুক্তরাষ্ট্রের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট হওয়ার দৌড়ে রিপাবলিকান পার্টির প্রার্থীদের মনোনয়ন পাওয়ার লড়াইয়ের বিতর্কে অংশ নেবেন না বলে জানিয়েছেন দেশটির সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

তার দাবি, তিনি ইতোমধ্যেই সুপরিচিত নেতা এবং জনমত জরিপে দলের অন্যান্য প্রার্থীদের তুলনায় এগিয়েও রয়েছেন তিনি। সোমবার (২১ আগস্ট) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প রোববার বলেছেন, তিনি রিপাবলিকান দলের প্রার্থীদের আসন্ন প্রাথমিক বিতর্কগুলোতে অংশ নেবেন না।

জনমত জরিপের ফলাফলকে তার বিশাল নেতৃত্বের প্রমাণ হিসাবে উল্লেখ করে তিনি দাবি করেছেন, তিনি ইতোমধ্যেই সবার কাছে সুপরিচিত এবং ২০২৪ সালের নির্বাচনের আগে ভোটাররা তাকে পছন্দও করছেন।

রিপাবলিকান দলের প্রেসিডেন্ট প্রার্থীদের প্রথম বিতর্ক স্থানীয় সময় আগামী বুধবার (২৩ আগস্ট) রাতে অনুষ্ঠিত হবে। দ্বিতীয় বিতর্ক সম্ভবত পরের দিন ২৪ আগস্ট অনুষ্ঠিত হতে পারে। এছাড়া আগামী সেপ্টেম্বর মাসেও অন্তত আরও দু’টি বিতর্ক অনুষ্ঠিত হতে পারে।

রয়টার্স বলছে, ট্রাম্প গত কয়েক মাস ধরে যে ইঙ্গিত দিয়ে এসেছেন তা হচ্ছে- তিনি সম্ভবত উইসকনসিনের মিলওয়াকিতে আগামী বুধবার রাতের বিতর্ক এড়িয়ে যাবেন। ট্রাম্পের এই সিদ্ধান্তের পেছনে যুক্তি হচ্ছে, জাতীয় নির্বাচনে তার উল্লেখযোগ্য নেতৃত্বের কারণে রিপাবলিকান প্রতিদ্বন্দ্বীদের তাকে আক্রমণ করতে সুযোগ দেওয়ার কোনও অর্থ হয় না।

রোববার মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিবিএস এর একটি জরিপে দেখা যাচ্ছে, রিপাবলিকান ভোটারদের মধ্যে ৬২ শতাংশের পছন্দের প্রার্থী হচ্ছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। আর তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ফ্লোরিডার গভর্নর রন ডিসান্টিসের পক্ষে আছেন ১৬ শতাংশ রিপাবলিকান ভোটার।

অন্যদিকে প্রাথমিক প্রতিযোগিতায় অন্যান্য সকল প্রার্থীর প্রতি ভোটারদের সমর্থন ১০ শতাংশেরও কম।

ট্রাম্প তার সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাপ ট্রুথ সোশ্যাল-এ বলেছেন, ‘জনগণ জানে আমি কে এবং কতটা সফল প্রেসিডেন্সি ছিল আমার। তাই আমি কোনও বিতর্কে অংশ নেব না।’

অবশ্য সাবেক এই মার্কিন প্রেসিডেন্টের রিপাবলিকান বিতর্কে অংশ নেওয়া বা না নেওয়া নিয়ে তাৎক্ষণিকভাবে কোনও মন্তব্য করেনি ট্রাম্পের প্রচার টিম।

রয়টার্স বলছে, চলতি সপ্তাহের বিতর্কে ট্রাম্পের অনুপস্থিতির অর্থ হচ্ছে- ট্রাম্পের প্রাথমিক বিকল্প হিসেবে ফ্লোরিডার গভর্নর রন ডিসান্টিস দলের অন্য প্রার্থীদের আক্রমণের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হবেন। রিপাবলিকান মনোনয়ন লড়াইয়ের বিজয়ী প্রার্থী ২০২৪ সালের নভেম্বরের নির্বাচনে ডেমোক্র্যাটিক প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সাথে লড়াই করবেন।

ডিসান্টিসের প্রচার টিমের মুখপাত্র অ্যান্ড্রু রোমিও বলেছেন, ‘ডোনাল্ড ট্রাম্পসহ কেউই এই মনোনয়ন পাওয়ার অধিকারী নয়। আপনাকে (যোগ্যতা) দেখাতে হবে এবং এটি অর্জন করতে হবে।’

উল্লেখ্য, যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ২০২০ নির্বাচনের সময় জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যে নির্বাচনের ফলাফল পাল্টে ফেলার চেষ্টার এক অপরাধে জড়িত থাকার অভিযোগ আনা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে আনা ১৩টি আনুষ্ঠানিক অভিযোগের মধ্যে রয়েছে ভয়ভীতি দেখানোর বিরুদ্ধে জর্জিয়ার গুণ্ডামি-বিরোধী র‍্যাকেটিয়ারিং আইন লঙ্ঘন করা, সরকারি কর্মকর্তার শপথ লঙ্ঘন এবং জালিয়াতির ষড়যন্ত্র।

হোয়াইট হাউজের সাবেক স্টাফ প্রধান মার্ক মেডোস এবং ডোনাল্ড ট্রাম্পের আইনজীবী রুডি জুলিয়ানি এবং মার্কিন বিচার বিভাগের সাবেক কর্মকর্তা জেফরি ক্লার্কসহ আরও ১৮ জনের বিরুদ্ধেও একই রকম অভিযোগ আনা হয়েছে।

অবশ্য যুক্তরাষ্ট্রের আইন অনুযায়ী ফৌজদারি অভিযোগের মুখোমুখি হওয়ার পরও কোনও ব্যক্তি নির্বাচনে অংশ নিতে পারেন। এর সর্ব-সাম্প্রতিক উদাহরণ হচ্ছে জর্জ ডব্লিউ বুশ। তিনি মদ্যপান করে গাড়ি চালানোর জন্য আদালতে দোষী সাব্যস্ত হয়েছিলেন।

যুক্তরাষ্ট্রে এটিকে সামান্য অপরাধ হিসেবে ধরা হয়, কিন্তু এরপরও তিনি পরপর দুই মেয়াদে হোয়াইট হাউসে দায়িত্ব পালন করেছেন।

তবে সামনে আসা নতুন নানা অভিযোগ ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচারের ওপর বিরূপ প্রভাব ফেলতে পারে বলে অনেকেই মনে করছেন।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

আজকের দিন-তারিখ
  • বৃহস্পতিবার (রাত ১০:০৯)
  • ৩০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • ২২শে জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি
  • ১৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ (গ্রীষ্মকাল)
Raytahost Facebook Sharing Powered By : Raytahost.com