জামায়াত নেতার বাড়িতে ডেপুটি স্পিকারসহ ১৩ এমপির মধ্যাহ্নভোজ

জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার ও পাবনা-১ আসনের সংসদ সদস্য শামসুল হক টুকুসহ ১৩ জন সংসদ সদস্য ঈশ্বরদীতে জামায়াত নেতার বাড়িতে মধ্যাহ্নভোজ করেছেন।

বুধবার (২৬ জুলাই) দুপুরে ঈশ্বরদী পৌরসভা জামায়াতের আমির গোলাম আজমের ইসলামপুর (ভূতেরগাড়ি) এলাকার বাসভবনে তারা এই মধ্যাহ্নভোজে অংশ নেন।

জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সহকারী পরিচালক মো. শোয়াইব হোসেনের পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ডেপুটি স্পিকার শামসুল হক বুধবার সকালে ঈশ্বরদীর রূপপুরে নির্মাণাধীন পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প পরিদর্শনে যান। তিনি প্রকল্প এলাকার ইউনিট-১ ও ২ পরিদর্শন করেন। এ ছাড়া প্রকল্প সংশ্লিষ্ট রুশ প্রকৌশলীদের পক্ষ থেকে প্রধান প্রকৌশলী খোশলেভ প্রকল্পের অগ্রগতিবিষয়ক একটি প্রেজেন্টেশন প্রত্যক্ষ করেন। ২০২৩ সালে ‘সিভিল ওয়ার্ক’ শেষ হতে পারে এবং ২০২৪ সালের নভেম্বর নাগাদ অন্যান্য কাজ শেষ হতে পারে বলে প্রকৌশলীদের পক্ষ থেকে জানানো হয়।

ডেপুটি স্পিকার শামসুল হকের নেতৃত্বে প্রকল্প পরিদর্শনে যোগ দেন সংসদ সদস্য নুরুজ্জামান বিশ্বাস, শাহিন আক্তার, খালেদা খানম, শিরিন আহমেদ, জিন্নাতুল বাকিয়া, বাসন্তি চাকমা, শামসুন্নাহার, নার্গিস রহমান, মনিরা সুলতানা, নাদিরা ইয়াসমিন জলি, রত্না আহমেদ, সেলিনা ইসলাম, সালমা চৌধুরী এবং মোছা. ডরথী রহমান।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র পরিদর্শন শেষে ডেপুটি স্পিকার শামসুল হকের নেতৃত্বে সংসদ সদস্যরা ঈশ্বরদী উপজেলা জামায়াতের আমির ও আরআরপি ফিড মিলের মালিক গোলাম আজমের বাড়িতে মধ্যাহ্নভোজ ও বিশ্রাম করেন। পরে তারা আরআরপি ফিড মিলের আঙিনায় একটি চারা রোপণ করেন। এরপর পাবনা জেলা শহরের সার্কিট হাউসে মহিলা আওয়ামী লীগের সমাবেশে যোগ দিতে তারা রওনা হন।

ঈশ্বরদী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ মিন্টু বলেন, আরআরপি গ্রুপের মালিক গোলাম আজম, মনসুর আলম, মনিরুল আলম, আজমত আলম চার ভাই। গোলাম আজম ঈশ্বরদী পৌর জামায়াতের আমির বলেই জানি। সেখানে মাননীয় সংসদ সদস্যরা আমন্ত্রিত ছিলেন জেনে আমিও সেখানে গিয়েছিলাম। তবে এটি রাজনৈতিক কোনো অনুষ্ঠান নয় বলে তিনি দাবি করেন।

এ বিষয়ে বক্তব্য জানতে ঈশ্বরদী পৌর জামায়াতের আমির গোলাম আজমের মোবাইল ফোনে একাধিকবার চেষ্টা করেও তার সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

তবে আরআরপি গ্রুপের পরিচালক ও গোলাম আজমের ভাতিজা রফিকুল আলম বলেন, ডেপুটি স্পিকার শামসুল হক টুকু আমার মামা। আমাদের আমন্ত্রণে তিনিসহ সংসদ সদস্যরা আমাদের বাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে এসেছিলেন। তারা দুপুরে খাবার শেষে বিশ্রাম নিয়ে চলে গেছেন।

পাবনা জেলা জামায়াতের সেক্রেটারি হাফেজ মাওলানা ইকবাল হোসাইন গোলাম আজমের রাজনৈতিক পরিচয় নিশ্চিত করেন। তবে তিনি বলেন, আমরা সামাজিক অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করি। সেখানে রাষ্ট্রের এমপি-মন্ত্রী পর্যায়ের লোকজন আসতেই পারেন।

এদিকে জামায়াত নেতার বাড়িতে একসঙ্গে ১৩ জন সংসদ সদস্যের আগমনে সমালোচনার ঝড় উঠেছে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের মধ্যে।

এ বিষয়ে পৌর যুবলীগের সভাপতি আলাউদ্দিন বিপ্লব বলেন, এত জায়গা থাকতে সরকারদলীয় এমপিদের খাওয়ার আর জায়গা ছিল না। জামায়াত নেতার বাড়িতে খেতে হবে, বিষয়টি লজ্জাজনক।

তবে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি রেজাউল রহিম লাল বিষয়টি নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

এ বিষয়ে ডেপুটি স্পিকার শামসুল হক টুকু বলেন, সংসদ সদস্যদের আগমনে স্থানীয় সংসদ সদস্যের (নুরুজ্জামান বিশ্বাস) ব্যবস্থাপনায় খাবারের আয়োজন ছিল। এ বিষয়ে তিনিই ভালো জানেন।

তবে পাবনা-৪ আসনের সংসদ সদস্য নুরুজ্জামান বিশ্বাস বলেন, সংসদ সদস্যদের সফর ও খাবারের বিষয়টি জাতীয় সংসদের ব্যবস্থাপনায় হয়েছে। তাদের আমন্ত্রণেই আমি রূপপুর প্রকল্প পরিদর্শনে গিয়েছিলাম। আরআরপি গ্রুপের নিমন্ত্রণ পেলেও আমি সেখানে না গিয়ে জরুরি কাজে ঢাকায় চলে এসেছি।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

আজকের দিন-তারিখ
  • রবিবার (রাত ১১:৩৫)
  • ১৬ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • ১০ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি
  • ২রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ (বর্ষাকাল)
Raytahost Facebook Sharing Powered By : Raytahost.com