প্রতি চ্যাটে কতটুকু পানি খরচ করে চ্যাটজিপিটি?

বর্তমানে সবচেয়ে জনপ্রিয় এআই চ্যাটবট হচ্ছে চ্যাটজিপিটি। এটি চালু করেছে ওপেনআই আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স (এআই)। গতবছর নভেম্বরে যাত্রা শুরু করে এটি। জানলে অবাক হতেই পারেন, প্রতি চ্যাটে আধা-লিটার পানি খরচ করে এই চ্যাটবট।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, দিনে দিনে মানুষের জায়গা দখল করবে এটি। কিন্তু এআই টুলের প্রভাবে যে পরিবেশের কতটা ক্ষতি হচ্ছে তা অনেকেই জানেন না।

ইতোমধ্যে বিশ্বের অনেক দেশ পানি সংকটে ভুগছে। যেখানে এক গ্লাস পানি সহজে পাওয়া দুর্লভ সেখানে প্রতি কথোপকথনে ৫০০ মিলিলিটার পানি খরচ করছে চ্যাটজিপিটি। তাহলে প্রতি মিনিটে কতটুকু পানি খরচ হচ্ছে?

চ্যাটজিপিটির এই খবর শুনে অবাক পরিবেশবিদরা। চ্যাটজিপিটি প্রশিক্ষণের পেছনে যে শক্তি খরচ হয় তা জানতে সম্প্রতি একটি গবেষণা করা হয়। মেকিং এআই রেস থার্স্টি নামে একটি পেপারে প্রকাশ করা হয় সেই তথ্য।

এই গবেষণায় দাবি করা হয়, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মাইক্রোসফট স্টেট অফ দ্য আর্ট ডেটা সেন্টারে চ্যাটজিপিটি প্রশিক্ষণের পেছনে ৭,০০,০০০ লিটার পানি খরচ হয়। এই সংখ্যা এশিয়ার ডেটা সেন্টারগুলোতে তিনগুণ বেশি।

চ্যাটজিপিটি সাধারণত একটি প্রশিক্ষণের টুল। যাকে একাধিক বিষয়ে ট্রেনিং দেওয়া হয়।  তা করার জন্য গড়ে উঠেছে বড় বড় ডেটা সেন্টার। যেখানে প্রশিক্ষণের মডেলগুলো সংরক্ষণ করা হয়। এই ডেটা সেন্টারগুলোর সার্ভার পরিচালনা করার জন্য দরকার পড়ে বিপুল শক্তি।

এসব করার জন্য পর্যাপ্ত কুলিং সিস্টেম এবং শক্তি নির্ভর কম্পিউটিং ব্যবস্থার প্রয়োজন পড়ে। এগুলো চালু রাখতে যে বিদ্যুৎ ব্যবহার করা হয় তা উৎপাদন করা হয় পানির মাধ্যমে। কারণ উচ্চ শক্তি এবং পর্যাপ্ত কুলিং সিস্টেম না থাকলে হার্ডওয়্যারগুলো সঠিকভাবে কাজ করতে পারে না।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

আজকের দিন-তারিখ
  • শুক্রবার (সকাল ৬:১৭)
  • ২১শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • ১৫ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি
  • ৭ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ (বর্ষাকাল)
Raytahost Facebook Sharing Powered By : Raytahost.com