একবার জাল ফেলেই ৪০ লাখ টাকার ইলিশ পেলেন মিজান মাঝি!

পটুয়াখালীর মহিপুরে মিজান মাঝি (৪৫) নামের এক জেলের জালে ধরা পড়েছে ৯৬ মণ ইলিশ। সোমবার (১৪ আগস্ট) দুপুরের দিকে এসব মাছ মৎস্য বন্দর মহিপুরের ফয়সাল ফিস আড়তে নিয়ে আসা হয়। পরে ডাকের মাধ্যমে ৩৯ লাখ ৭০ হাজার টাকায় বিক্রি করা হয়।

নিষেধাজ্ঞার পর সাগরে মাছ শিকারে গিয়ে মিজান মাঝির জালেই সবচেয়ে বেশি মাছ ধরা পড়ে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মহিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও মহিপুর মৎস্য আড়ৎ মালিক সমিতির সাবেক সভাপতি ফজলু গাজী।

মিজান মাঝি জানান, ‘এফবি ভাই ভাই নামে’ একটি মাছধরা ট্রলার নিয়ে গত ৫ দিন আগে নোয়াখালীর সামরাজ থেকে গভীর সাগরের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। কয়েকদিন সাগরে জাল ফেলার পরও তাদের জালে তেমন মাছ মেলেনি। পরে গতকাল পায়রা বন্দরের শেষ বয়ার দিকে সাগরে জাল ফেলার পর এক খ্যাওয়ে (একটানে) ধরা পড়ে প্রায় ৯৬ মণ ইলিশ। একবারে এতো ইলিশ পাওয়ায় তিনি অনেকটা অবাকই হন।

তিনি আরও জানান, এফবি ভাই ভাই ট্রলারের মালিক তিনি নিজেই। ৬৫ দিনের নিষেধাজ্ঞায় অনেক ধারদেনায় জর্জরিত হয়ে পড়েন। মাছ বিক্রির টাকায় তিনি তার ঋণ পরিশোধ করবেন।

মহিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও মহিপুর মৎস্য আড়ৎ মালিক সমিতির সাবেক সভাপতি ফজলু গাজী বলেন, নোয়াখালীর মিজান মাঝির জালে এ মৌসুমের সবচেয়ে বেশি মাছ ধরা পড়েছে। তবে অন্যান্য জেলের জালে তেমন বেশি মাছ ধরা পড়ছে না। অনেক জেলে সাগরে যাওয়া-আসার খরচই তুলতে পারছেন না।কলাপাড়া সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা অপু সাহা বলেন, বর্তমানে ইলিশের মৌসুম চলছে। শুধু মিজান নয় আমরা আশা করছি আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে সব জেলের জালেই ধরা পড়বে কাঙ্ক্ষিত ইলিশ।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

আজকের দিন-তারিখ
  • বুধবার (রাত ৪:৫৩)
  • ১৭ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • ৮ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি
  • ৪ঠা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ (গ্রীষ্মকাল)
Raytahost Facebook Sharing Powered By : Raytahost.com