২০২৪ সালে যেসব ট্রফি জিততে পারেন মেসি

বিশ্বকাপ জয়ের সুখস্মৃতি নিয়ে ২০২৩ সাল শুরু করেছিলেন লিওনেল মেসি। এ বছরও একাধিক ট্রফির পাশে লেখা হয়েছে মেসির নাম। পিএসজির হয়ে দুটি এবং নতুন মৌসুমে ইন্টার মায়ামিতে গিয়ে জিতেছেন একটি শিরোপা। ক্লাবের হয়ে তিনটি শিরোপা জিতলেও জাতীয় দলের হয়ে এ বছর কোনো ট্রফি জেতার সুযোগ ছিল না মেসির।

এ বছর আর্জেন্টিনার কোনো আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট না থাকার কারণেই মূলত জাতীয় দলের জার্সিতে ট্রফিহীন থাকতে হয়েছে মেসিকে। ২০২৪ সালে অবশ্য মেসির সামনে ক্লাবের পাশাপাশি জাতীয় দলের হয়েও ট্রফি জেতার দারুণ সুযোগ আছে। জাতীয় দলের হয়ে দুটি এবং ক্লাবের হয়ে মেসি জিততে পারেন ছয়টি ট্রফি। এই আট ট্রফির মধ্যে আছে কোপা আমেরিকা ও কনকাকাফ চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতার সুযোগও।

২০২৪ সালে আর্জেন্টিনা জাতীয় দলের সামনে বেশকিছু গুরুত্বপূর্ণ উপলক্ষ আছে। এই বছর প্রীতি ম্যাচ ও ২০২৬ বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচের পাশাপাশি কোপা আমেরিকার মতো বড় প্রতিযোগিতায় খেলতে নামবেন মেসিরা। পাশাপাশি মেসির সামনে সুযোগ আছে আরেকটি অলিম্পিক সোনা জেতারও।

কোপা আমেরিকার বর্তমান চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা। আগামী বছর যুক্তরাষ্ট্রে শিরোপা ধরে রাখার লড়াইয়ে মাঠে নামবে তারা। ২০ জুন শুরু হওয়া টুর্নামেন্টের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে ১৪ জুলাই। সাম্প্রতিক ছন্দ বিবেচনায় এই টুর্নামেন্টে ফেবারিট হিসেবেই মাঠে নামবে মেসির আর্জেন্টিনা। গ্রুপ পর্বে বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের প্রতিপক্ষ পেরু আর চিলির সঙ্গে মেসিরা পাবেন কনক্যাকাফ অঞ্চলের কানাডা বা ত্রিনিদাদ অ্যান্ড টোবাগোকে। প্লে-অফে মুখোমুখি হয়ে এ দুই দলের যেকোনো একটি মূলপর্বের টিকিট পাবে।

কোপা আমেরিকা শেষ হওয়ার দুই সপ্তাহ পর শুরু হবে প্যারিস অলিম্পিক। এর আগে জানুয়ারির শেষ দিকে আর্জেন্টিনা অনূর্ধ্ব-২৩ দল প্রি অলিম্পিক চ্যাম্পিয়নশিপ খেলবে। যদি তারা উত্তীর্ণ হতে পারে, তবে মূলপর্বে লড়াইয়ের সুযোগ পাবে। আর মূল লড়াইয়ে অনূর্ধ্ব-২৩ দলের পাশাপাশি বেশি বয়সী তিনজন খেলোয়াড় খেলানোর সুযোগ আছে।

গুঞ্জন আছে আর্জেন্টিনা মূল লড়াইয়ে সুযোগ পেলে সেখানে খেলতে পারেন মেসিও। মেসির অলিম্পিকে খেলা নিয়ে অনূর্ধ্ব-২৩ দলের কোচ হাভিয়ের মাচেরানো কয়েক দিন আগে বলেছিলেন, ‘যদি সে খেলতে চায়, আমরা তাকে স্বাগত জানাব, তবে আমাদের আগে উত্তীর্ণ হতে হবে। মেসি যেখানে যেভাবে জাতীয় দলে খেলতে চায়, তার জন্য দ্বার সব সময় খোলা।’

২০২৪ সালে মেসি মেজর লিগ সকারের (এমএলএস) পুরোটাই খেলার সুযোগ পাবেন। এ বছর মেসি এসেই বদলে দিয়েছেন দলকে। এর মধ্যে দলে যোগ দিয়েছেন লুইস সুয়ারেজও। নতুম মৌসুমে প্লে-অফে চোখ রেখেই মাঠে নামবে ইন্টার মায়ামি। এ বছর ইন্টার মায়ামিতে যোগ দিয়েই দলটিকে নিজেদের ইতিহাসের প্রথম ট্রফি এনে দিয়েছেন মেসি।

তাঁর হাত ধরেই ইন্টার মায়ামি জিতেছে লিগস কাপের শিরোপা। এবার মেসির সামনে চ্যালেঞ্জ সেই শিরোপা ধরে রাখার। এরপর মেসি তৃতীয় যে শিরোপাটি মায়ামিকে জেতাতে পারেন, সেটি ইন্টার-আমেরিকান কাপ। গত মৌসুমে লিগস কাপ জেতার কারণেই মূলত এই টুর্নামেন্টে খেলার সুযোগ পেয়েছে ইন্টার মায়ামি ।

মেসির সামনে এবার কনকাকাফ চ্যাম্পিয়স লিগ জেতারও দারুণ সুযোগ আছে। এই টুর্নামেন্টে সরাসরি শেষ ষোলোয় খেলবে মায়ামি। যেখানে তাদের প্রতিপক্ষ রাউন্ড ওয়ানে মুখোমুখি হতে যাওয়া যুক্তরাষ্ট্রের নাশভিল ও ডমিনিক রিপাবলিকের দেপোর্তিভো মোকার মাঝে বিজয়ী দল।

এই প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হলে ইন্টার মায়ামি বছরের শেষ দিকে গিয়ে ইন্টারকন্টিনেন্টাল কাপে খেলার সুযোগ পাবে। আর শেষ যে শিরোপাটি ইন্টার মায়ামি জিততে পারে, সেটি ইউএস ওপেন কাপ। শেষবার ফাইনালে হেরে রানার্সআপ হয়েছিলেন মেসিরা। এবার নিশ্চয়ই শিরোপা জিততে মুখিয়ে থাকবেন আর্জেন্টাইন অধিনায়ক।

 

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

আজকের দিন-তারিখ
  • বৃহস্পতিবার (রাত ২:২৪)
  • ৩০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • ২২শে জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি
  • ১৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ (গ্রীষ্মকাল)
Raytahost Facebook Sharing Powered By : Raytahost.com