অধিনায়ক হিসেবে বিসিবির ভবিষ্যৎ পরিকল্পনায় শান্ত

বর্তমানে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের তিন ফরম্যাটের অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন দেশ-বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। তবে গেল বিশ্বকাপে তিনি হাতে চোট পেয়ে মাঠের বাইরে ছিটকে গেলে বিশ্বকাপের শেষ ম্যাচ ও পরবর্তী সময় ঘরের মাটিতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ এবং নিউজিল্যান্ড সফরে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজে দলকে নেতৃত্ব দেন নাজমুল হোসেন শান্ত। আর তিন সিরিজেই তিনি ইতিহাস গড়া সাফল্য এনে দিয়েছেন দেশের ক্রিকেটে। এমন সাফল্যের পর টাইগারদের ভবিষ্যৎ অধিনায়কের পরিকল্পনায় ঢুকে গিয়েছেন টাইগার টপ অর্ডারের এই ব্যাটার। গতকাল মঙ্গলবার গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে এমনটি জানিয়েছেন বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্স চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস।

শান্তকে নিয়ে ভবিষ্যত্ অধিনায়কের পরিকল্পনার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘ওয়ানডে-টেস্ট ও ভালো অধিনায়কত্ব করেছেন। তিনটা ফরম্যাটেই আমরা দেখেছি। সে ভালোই করছে। ভবিষ্যৎ পরিকল্পনায় শান্তর কথা অবশ্যই মাথায় আসবে সবাইর। এটা স্বাভাবিক, যেহেতু সে ভালো করেছে এবং নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন।’ এর আগে গেল বছর ওয়ানডে ফরম্যাটে এশিয়া কাপ ও বিশ্বকাপের আগে দেশসেরা ওপেনার তামিম ইকবাল এই ফরম্যাটের নেতৃত্বের দায়িত্ব ছেড়ে দিলে তা ওঠে সাকিব আল হাসানের কাঁধে। যদিও বিশ্বকাপের আগে সাকিব এক গণমাধ্যমে বলেছিলেন, তিনি ঐ টুর্নামেন্ট শেষে অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেবেন।

তবে বিশ্বকাপ শেষ হয়েছে প্রায় দুই মাসের বেশি সময় হলেও সাকিব এখনো রয়েছেন অধিনায়ক হিসেবেই। যদিও মাঠের বাইরে তিনি এখনো তিন ফরম্যাটের নেতা হিসেবে রয়েছেন। এ প্রসঙ্গে জালাল ইউনুস বলেন, ‘আমি আগেও বলেছি, সাকিব আমাদের আনুষ্ঠানিকভাবে আমাদের কিছু বলেনি। তো আমরা কোনো মতেই এটা নিয়ে মন্তব্য করতে পারি না। আর এজন্যই আমরা ধরে নিচ্ছি তিনি আমাদের বর্তমানেও অধিনায়ক। যদি সাকিব আমাদের সঙ্গে বসে কথা বলে, তার যদি নিজস্ব কোনো পরিকল্পনা থাকে তখনি আপনাদের বলতে পারব তার আগে বলাটা ঠিক হবে না।

এদিকে চলতি বছরে বেশ ব্যস্ত সময় কাটাবে দেশের ক্রিকেট। বছরটা শুরু হবে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) দিয়ে। সেটা শেষ হওয়ার পরপরই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে পূর্ণাঙ্গ সিরিজ। এরপর আবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ঠিক আগে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে পাঁচ টি-টোয়েন্টি ও দুটি টেস্টও রয়েছে সূচিতে। তবে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ঘরের মাঠের এই সিরিজে কিছুটা পরিবর্তন আসতে পারে। বিশ্বকাপের আগে টেস্ট খেলতে চায় না বাংলাদেশ। সেটিকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হতে পরে সুবিধাজনক সময়ে।

এ প্রসঙ্গে ক্রিকেট অপারেশন্স চেয়ারম্যান বলেন, ‘আমি বলেছি এটা এখনো চূড়ান্ত নয়। কিন্তু আমরা চাইব যেহেতু দুইটা টেস্ট ম্যাচ আছে এরপর পাঁচটা টি-টোয়েন্টি। এই পাঁচটা টি-টোয়েন্টি আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। আমরা এখনো সিদ্ধান্ত নিইনি কিন্তু চাইব ২টা টেস্ট কমানো যায় কি না। তাহলে পরবর্তী সময় আমরা অন্য জায়গায় সরিয়ে নিতে পারি। এটা এখনো আনুষ্ঠানিক নয়। এখন আমরা আনঅফিশিয়াল বলতে পারি এরকম চাইছি পরে এটা জানাতে পারব। যেহেতু আমরা জিম্বাবুয়ের সঙ্গে আইটেনেরি নিয়ে চুক্তি সই করিনি। এজন্য এই মুহূর্ত বলা কঠিন।’

এ বিষয়ে ধীরস্থিরভাবে সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা জানিয়েছেন জালাল। তিনি বলেন, ‘দরকার হলে পরে সরিয়ে নেওয়া হবে। তবে এখনো চূড়ান্ত নয়। যেহেতু এখনো দেরি আছে, শ্রীলঙ্কার পর জিম্বাবুয়ে সেহেতু আমাদের সময় আছে এখনো।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

আজকের দিন-তারিখ
  • মঙ্গলবার (রাত ৪:৩৩)
  • ২১শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • ১৩ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি
  • ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ (গ্রীষ্মকাল)
Raytahost Facebook Sharing Powered By : Raytahost.com