নোয়াখালীতে শিশু ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেপ্তার

নোয়াখালী সুধারামে পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রীকে আটক রেখে ধর্ষণের অভিযোগে সাইফুল ইসলাম (৩০) নামের এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার দুপুরে গ্রেপ্তারকৃত সাইফুলকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। অন্যদিকে আদালতে ২২ধারায় ভুক্তভোগীর জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃত সাইফুল ইসলাম জেলার সেনবাগ উপজেলার নবীপুর ইউনিয়নের বৃষ্ণপুর গ্রামের বালি বাড়ীর মৃত আব্দুল গফুরের ছেলে।

ধর্ষণের ঘটনায় গ্রেপ্তার সাইফুলকে প্রধান আসামি করে সাতজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছিলেন ভুক্তভোগীর মা।

মামলার অপর আসামিরা হচ্ছেন, মিরাজ হোসেন, কামাল ডাক্তার, কবির হোসেন, জাকের হোসেন, মাস্টার ও ফারুক।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, বেগমগঞ্জ উপজেলার কাদিরপুর ইউনিয়নের বাসিন্দর ওই ছাত্রীর সঙ্গে মোবাইলে কথা হতো মিরাজ হোসেন নামের এক যুবকের। এর সূত্র ধরে গত ২১ডিসেম্বর শনিবার দুপুরে ওই ছাত্রীকে মোবাইলে স্থানীয় কুতুবেরহাট বাজারে ডেকে আনেন সাইফুল। পরে মিরাজ মাইজদীতে আছে সেখানে যাওয়ার পর তাদের বিয়ে হবে বলে মাস্টার নামের এক সিএনজি চালকের গাড়িতে ভিকটিমকে তুলে দেন সাইফুল। মাস্টার ভিকটিমকে নিয়ে কবিরহাট হয়ে বিভিন্ন স্থানে ঘুরে রাত ৮টার দিকে মাইজদী পারিবারিক বর্ডিংয়ে নিয়ে যায়। পরে বর্ডিংয়ে স্বামী-স্ত্রী পরিচয় দিয়ে কৌশলে সাইফুল তাকে আটকে রেখে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ ভিকটিমের। পরে ওই ছাত্রীকে মাস্টার, কামাল ডাক্তার, কবির ও জাকের মিলে তাদের বাড়ির সামনে রেখে পালিয়ে যায়।

সুধারাম মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. শাহ আলম বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ঘটনায় বুধবার রাতে ভিকটিমের মা বাদী হয়ে সাইফুলকে প্রধান আসামি করে সাত জনের বিরুদ্ধে সুধারাম মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। রাতে অভিযান চালিয়ে সাইফুলকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মামলার অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। ভুক্তভোগীর ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

আজকের দিন-তারিখ
  • শুক্রবার (সকাল ৯:৩৯)
  • ২১শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • ১৫ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি
  • ৭ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ (বর্ষাকাল)
Raytahost Facebook Sharing Powered By : Raytahost.com