প্রতিটি লাইব্রেরিতে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ কর্নার স্থাপনের ওপর গুরুত্বারোপ

প্রতিটি লাইব্রেরিতে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ কর্ণার স্থাপনের ওপর গুরুত্বারোপ করেছে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি। কমিটির বৈঠকে তরুণ প্রজন্মকে লাইব্রেরিমুখী ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ করার লক্ষ্যে লাইব্রেরিতে উন্নতমানের গ্রন্থ সংগ্রহ, বিতর্ক ও নানাবিধ প্রতিযোগিতার আয়োজন করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

আজ সোমবার জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত ওই বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন সংসদীয় কমিটির সভাপতি সিমিন হোসেন (রিমি)। বৈঠকে কমিটির সদস্য সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ, আসাদুজ্জামান নূর, কাজী কেরামত আলী, অসীম কুমার উকিল, সুবর্ণা মুস্তাফা ও সেলিনা ইসলাম এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

কমিটি সূত্র জানায়, বৈঠকে জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্রের চলমান কার্যক্রম সর্ম্পকে আলোচনাকালে জানানো হয়, চলতি অর্থবছরের দ্বিতীয়ার্ধে (জানুয়ারি-জুন ২০২০) জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্র কর্তৃক জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে ছয়টি বিভাগীয় বা জেলা বইমেলা আয়োজনের পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। আর ‘সোনার মানুষ গড়ার সুদৃঢ় প্রত্যয়ে’ কার্যকর গ্রন্থাগার আন্দোলন গড়ে তোলার লক্ষ্যে সারাদেশের বেসরকারি গ্রন্থাগার পরিচালনার সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিবর্গকে নিয়ে ঢাকায় চারটি বিশেষ কর্মশালার আয়োজন করা হবে।

কমিটির পক্ষ থেকে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সময়কালে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, শিক্ষা, অর্থ ও পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় কর্তৃক যে সকল পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছিল সেগুলো যথাযথভাবে আর্কাইভস-এ সংরক্ষণের ওপর গুরুত্বারোপ করা হয়। আর জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্রকে একটি স্বতন্ত্র অধিদপ্তর হিসেবে প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে গ্রন্থকেন্দ্রের কার্যক্রম ও কর্মপরিকল্পনা পর্যালোচনা করে কমিটির পরবর্তী বৈঠকে একটি প্রতিবেদন উপস্থাপনের সুপারিশ করা হয়।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Raytahost Facebook Sharing Powered By : Raytahost.com