রঙিন ব্যানার-ফেস্টুন না টাঙিয়ে এই টাকা গরিব-দুস্থদের দিন: কাদের

ব্যানার-ফেস্টুন না টাঙিয়ে এই টাকা গরিব-দুস্থদের দিয়ে দিতে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের নির্দেশ দিয়েছেন দলের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেছেন, বড় বড় স্লোগান, পোস্টার আর নানা রঙের ব্যানার-ফেস্টুন দিয়ে নেতা হওয়া যায় না। নেতা হতে হলে অনেক ত্যাগ স্বীকার করতে হয়।সোমবার পটুয়াখালী শহরের শহীদ আলাউদ্দিন শিশুপার্কে পটুয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, সম্মেলন ঘিরে বড় বড় গেট, বড় বড় পোস্টার। নানা রঙের ব্যানার-ফেস্টুন তৈরি করতে কত টাকা খরচ হয়েছে। সাজসজ্জা করার এত টাকা কোথায় পেলেন? ব্যানার-ফেস্টুন আর পোস্টার না ছাপিয়ে এসব টাকা অসুস্থ, অসচ্ছল ও গরিব মানুষকে দিন। এসব টাকায় অসহায় মানুষের উপকার হলে তখন আপনি নেতা হবেন। অন্যথায় ব্যানার-ফেস্টুন আর পোস্টার দিয়ে নেতা হতে পারবেন না।

তিনি বলেন, ঘরের মধ্যে ঘর, ১৪ জন দিয়ে কমিটি গঠন এবং পকেট কমিটি করা চলবে না। এসব বন্ধ করুন।

তিনি বলেন, দুর্নীতিবাজ, চাঁদাবাজ, মাদক ব্যবসায়ী, লুটেরা ও সন্ত্রাসীরা সাবধান। দলে বসন্তের কোকিল লাগবে না। বসন্তের কোকিলদের নিয়ে দল ভারী করবেন না। আমরা বসন্তের কোকিল চাই না। ত্যাগী নেতাকর্মীদের মূল্যায়ন করতে হবে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বসন্তের কোকিল দলে টেনে ত্যাগী নেতাকর্মীদের কোণঠাসা করে দল ভারী করার দরকার নেই। বিলবোর্ডে ছবি ও স্লোগান দিয়ে পোস্টার লাগিয়ে নেতা হওয়া যায় না। কর্মীরা ঠিক আছে, সব গোলমালের উৎস হচ্ছে এই মঞ্চ।

নেতারা ঘরের মধ্যে ঘর করে মশারির মধ্যে মশারিতে আত্মীয়করণ করে চৌদ্দ পুরুষকে নিয়ে পকেট কমিটি করে! পকেট কমিটি চলবে না, কমিটি করতে গিয়ে খারাপ মানুষকে দলে টানা যাবে না। অনেক ত্যাগী নেতা কমিটিতে জায়গা পাননি, তাদের জায়গা করে দিতে হবে। কর্মীদের কোণঠাসা করে আওয়ামী লীগ বাঁচবে না বলে মন্তব্য করেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়নকে বাঁচাতে হলে শেখ হাসিনাকে বারবার ক্ষমতায় আনতে হবে। গত ৪৪ বছরে বাঙালি জাতির ইতিহাসে সাহসী রাজনীতি ও সফল নারী নেতৃত্বের অধিকারী বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা। বাংলাদেশকে বাঁচাতে হলে আওয়ামী লীগকে বাঁচিয়ে রাখুন। দেশে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ রুখে দাঁড়াতে ঐক্যবদ্ধ হয়ে আওয়ামী লীগকে শক্তিশালী করুন।

এর আগে শহরের শহীদ আলাউদ্দিন শিশুপার্কে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে এবং জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে সম্মেলন উদ্বোধন করেন পার্বত্য শান্তিচুক্তি বাস্তবায়ন কমিটির আহ্বায়ক আবুল হাসনাত আবদুল্লাহ। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পটুয়াখালী-১ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মো. শাহজাহান মিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন দলের সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান, তথ্য ও গবেষণাবিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো. আফজাল হোসেন, উপদফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, সদস্য গোলাম রাব্বানী চিনু প্রমুখ।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Raytahost Facebook Sharing Powered By : Raytahost.com