আজও অশান্ত পশ্চিমবঙ্গ, বন্ধ ইন্টারনেট

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন বিলের প্রতিবাদে টানা তৃতীয় দিনের মতো অশান্ত পশ্চিমবঙ্গ বাজ্যের বিভিন্ন এলাকা। রোববার (১৫ ডিসেম্বর) সকাল থেকেই রাস্তায় নেমে আসেন সাধারণ মানুষ। দফায় দফায় সড়ক ও রেল অবরোধ শুরু হয়। পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের বেশকিছু অঞ্চলে সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে ইন্টারনেট সেবা।

দেশটির আনন্দবাজার পত্রিকার খবরে বলা হয়েছে, শনিবার দিনভর বিক্ষোভের পর এদিন সকালেও বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে ওঠে উত্তর ২৪ পরগনার খড়দহ, আমডাঙা এবং দেগঙ্গা। আমডাঙায় ধানকল মোড় অবরোধ করেন বিক্ষোভকারীরা। সোনাডাঙা মোড়েও অবরোধ করা হয়। ৩৫ নম্বর জাতীয় সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে, গাছের গুড়ি ফেলে অবরোধ করলে যানজট সৃষ্টি হয়। টায়ার জ্বালিয়ে পথ অবরোধ করা হয় দেগঙ্গাতেও। ভ্যাবলায় ট্রেন অবরোধ করেন বিক্ষোভকারীরা।

বীরভূমের মুরারই আজও অশান্ত। মিত্রপুর ও হিয়াতনগর মোড়ে রাস্তার উপর আগুন জ্বালিয়ে অবরোধ করা হয়। নলহাটি-আজিমগঞ্জ, আজিমগঞ্জ-নিউ ফরাক্কা এবং কৃষ্ণনগর-লালগোলা শাখায় এখনও ট্রেন পরিষেবা চালু হয়নি। হাওড়ায় কোনা এক্সপ্রেসওয়ের গরফা ব্রিজের কাছে টায়ার জ্বালিয়ে রাস্তা অবরোধ করেন বিক্ষোভকারীরা। সেখানে বেশ কয়েকটি গাড়িতে ভাঙচুর চালানো হয়েছে বলেও অভিযোগ। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশকে লাঠিচার্জ করতে হয় বলে জানা গিয়েছে। রাস্তা অবরোধের জেরে দোলতলা এবং যশোর রোডেও যান চলাচল বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে।

পূর্ব ক্যানিংয়ের বিধায়ক তথা দক্ষিণ ২৪ পরগণায় যুব তৃণমূলের সভাপতি শওকত মোল্লার নেতৃত্বে নয়া নাগরিকত্ব বিলের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ মিছিল বেরিয়েছে। রাজ্যের মন্ত্রী অরূপ রায়ের নেতৃত্বে মিছিল বেরিয়েছে হাওড়ার শিবপুরে। দুর্গাপুরের বেনাচিতি বাজারে মিছিল করে কংগ্রেস।

এদিকে রোববার পশ্চিমবঙ্গের মালদা, মুর্শিদাবাদ, উত্তর দিনাজপুর, হাওড়া এলাকাসহ উত্তর চব্বিশ পরগনার বারাসাত ও বশিরহাট এলাকায় এবং দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার বারুইপুর ও কানিং এলাকায় বন্ধ রয়েছে ইন্টারনেট সেবা।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Raytahost Facebook Sharing Powered By : Raytahost.com